গুগল প্লাস টিউটোরিয়ালঃ ৬ স্টেপে গুগল প্লাস এর প্রাইভেসি!

গুগল প্লাস নিয়ে গত ৬টি পোস্টে প্রায় প্রাথমিক পর্যায়ের অনেক কিছুই বিস্তারিত দেখান হয়ে। আজ থেকে দেখানো হবে এডভান্স পর্যায়ের কাজ গুলো। সেই ধারাবাহিকতায় আজকের পোস্টি হবে প্লাস এর প্রাইভেসি নির্ধারন করা নিয়ে। তও চলুন শুরু করা যাক…

১. সার্কেল তৈরী করাঃ গুগল প্লাস এর সব সেবাগুলোর মধ্যে “সার্কেল” এর অন্যতম একটি। সার্কেলের মাধ্যমে আপনি আপনার বন্ধুদেরকে কে কোন শ্রেণীর তা নির্ধারন করে রাখতে পারেন এবং সেই অনুযায়ী আপনার প্রয়োজনীয় এবং প্রতিদিনের চলাফেরার খবরাখবর শেয়ার করতে পারেন। এক্ষেত্রে খেয়াল রাখবেন আপনি যে সার্কেলে যে ধরনের বন্ধু রাখবেন সেধরনের খবরই শেয়ার করবেন। নয়তো হিতেবিপরিত হতে পারে।

২. প্রোফাইল লিমিট করাঃ সাধারণভাবে আপনি গুগল প্লাসে সাইনআপ করার পরপরই আপনার প্রোফাইল পুরোপুরি উম্মুক্ত ওয়েবের থাকে সবার জন্য। এতে করে আপনার অনেক গোপনীয়তা নষ্ঠ হতে পারে। তাই সাইনআপ সম্পুর্ন হবার পরেই প্রোফাইলকে শুধু মাত্র আপনার সার্কেলের জন্য উম্মুক্ত করবেন যাতে আপনার সার্কেল ছাড়া আর অন্যকেউ আপনার তথ্য দেখতে না পারে।

৩. সার্চ ইঞ্জিন ব্লক করাঃ প্রোফাইল লিমিটের মত বাই ডিফল্ট সব সার্চ ইঞ্জিনে আপনার ভিজিবল থাকে সাইন আপের পরপরই। মানে যেকেউ ইচ্ছা করেলেই আপনাকে সার্চ করে খুজে নিতে পারবে সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে। এতে আপনার কোনো গুরুপ্তপূর্ন তথ্য চুরি হতে পারে নাও হতে পারে। তবে আপনি চাইলে আপনার প্রোফাইল সেটিং থেকে সার্চ ইঞ্জিন ব্লক করে রাখতে পারেন যাতে কোন সার্চ ইঞ্জিন আপনার প্রোফাইলকে ইন্ডেক্স/খুঁজে না পায়।

৪. অন্যান্য সেটিং সম্পাদনঃ এই সেটিং ক্ষেত্রটি অন্যান্য প্রাইভেসি থেকে আলাদা। এই স্তরে আপনিঃ আপনার সার্কেল বন্ধুরা বাদে অন্য কেউ আপনার প্রোফাইল (বেপারটি অনেকটা ফেসবুকের Friends or Friend এর মতো) দেখতে পারবে কিনা, আপনার সার্কেল বন্ধুরা বাদে অন্য কেউ আপনাকে মেইল দিতে পারবে কিনা, কেউ বিরক্ত করলে তাকে ব্লক করবেন কিনা এই বিষয়গুলো নির্ধারন করবেন।

৫. স্ট্রীম শেয়ারিংঃ স্ট্রীম কি কেন এবং কিভাবে এগুলো নিয়ে পূর্বে আলোচনা করেছি। গুগল প্লাসে আপনি আপনার স্ট্রীমগুলো বন্ধুদের সাথে ইচ্ছামত শেয়ার করতে পারবেন। তবে যখনি নতুন স্ট্রীম লিখবেন তখনি খেয়াল রাখবেন যেন আপনার স্ট্রীমটি আপনার কাংঙ্খিত বন্ধুরাই পায়। সাধারন ভাবে গুগল আপনার সর্বশেষ স্ট্রীম শেয়ারের হিস্টরীটী সেভ রাখে এবং পরবর্তী স্ট্রীম লিখলে সেটা পূর্ববর্তী স্ট্রীম সার্কেলের সাথে শেয়ার করতে বলবে। এইক্ষেত্রে আপনি আপার ইচ্ছামত সার্কেল নির্ধারন করে নিবেন।

৬. মন্তব্য প্রকাশঃ মনে রাখবেন, আপনার মত আপনার বন্ধুদের প্রাইভেসি সেট করা থাক্তেও পারে এবার নাও থাকতে পারে। তবে প্রাইভেসি যা-ই থাকুক না কেন, আপনি আপনার অন্য বন্ধুদের পোস্টে বা স্ট্রীমে মন্তব্য করলে সেটা আপনার বন্ধুর বন্ধুরাও দেখতে পারবে। তাই এক্ষেত্রে প্রাইভেসি কাজে আসবে না।

সুতরাং বেপারগুলো মাথায় রাখুন, খুব শীঘ্রই আসছি প্রাইভেসি সম্পর্কিয় তথ্যবহুল লিখা নিয়ে।

সেই প্রত্যাশায়, আজ এই পর্যন্ত!
সবাই ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন!🙂

2 thoughts on “গুগল প্লাস টিউটোরিয়ালঃ ৬ স্টেপে গুগল প্লাস এর প্রাইভেসি!

মন্তব্য প্রদান করুন ...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s